ফ্রিল্যান্সিং কাজ করার জন্য কিসের প্রয়োজন । কিভাবে ফ্রিল্যান্সিং শিখবো

ওয়েলকাম করছি ফ্রিল্যান্সিং সম্পর্কিত দ্বিতীয় ব্লগে। আজকে আমরা ফ্রিল্যান্সিং কাজ করার জন্য কিসের প্রয়োজন এবং ফ্রিল্যান্সিং সম্পর্কিত আরও কিছু গুরুত্বপূর্ণ বিষয়ে জানবো।

সাধারনভাবেই বর্তমান সময়ে ফ্রিল্যান্সিং কাজ করার জন্য কিসের প্রয়োজন কিংবা কিভাবে শুরু করবো ফ্রিল্যান্সিং বা কিভাবে শিখবো ফ্রিল্যান্সিং এই বিষয়গুলো জানার জন্য মানুষের আগ্রহ দিন দিন বেড়েই চলেছে। এর অন্যতম কারণ ফ্রিল্যান্সিং করে ঘরে বসে লাখ লাখ ডলার আয় করা যায়।

কিন্তু আমাদের স্বাভাবিকভাবেই বোঝা উচিত যে, কেউ আমাদেরকে শুধু শুধু টাকা দিবে না। আমাদের স্কিল অর্জন করে তবেই কাজ করতে হবে। এবং আমরা যদি সেটা পারি তাহলেই ফ্রিল্যান্সিং কাজ করা সম্ভব। তাহলে স্টেপ বাই স্টেপ চলুন ফ্রিল্যান্সিং কাজ করার জন্য কিসের প্রয়োজন স সম্পর্কে জানবো।

ফ্রিল্যান্সিং বলতে কি বুঝায় ? ফ্রিল্যান্সিং কেন করব

ঘরে বসে অনলাইনের মাধ্যমে নিজের স্কিল দিয়ে অন্যের কাজ করে দেওয়াকে ফ্রিল্যান্সিং বলে। আরও সহজ ভাবে বললে, ফ্রিল্যান্সং হচ্ছে এমন একটি কাজ যার মাধ্যমে ঘরে বসে বিশ্বের যেকোনো দেশের মানুষের কাজ করা হাজার হাজার বইদেশিক মুদ্রা আয় করা যায়।

মানুষ প্রফেশনাল ফ্রিল্যান্সিং মূলত করে থাকে মূলত মুক্তভাবে কাজ করে টাকা আয় করার জন্য। তবে শুধু মাত্র টাকা আয় করার জন্য কখনোই ফ্রিল্যান্সিং কাজের দুনিয়ায় আশা উচিত না।

কারণ ফ্রিল্যান্সিং কাজের জন্য দরকার এই কাজ নিজের মধ্যে রপ্ত করার ঠাণ্ডা মানসিকটা।

কেউ যদি নিজেকে নির্দিষ্ট গন্ডির মধ্যে আঁটকে  না রাখতে চান কিংবা অন্যের অধীনে কাজ করতে না চান এবং অনলাইনে কাজ করতে স্বাচ্ছন্দ্য বোধ করেন তাহলে ফ্রিল্যান্সিং দুনিয়া আপনাকেই খুজছে।

এর অন্যতম কারণ, ফ্রিল্যান্সিং দুনিয়ায় আপনি প্রথম ৬ মাস কিংবা ১ বছর কাজ শিখবেন। যেই কাজটিতে আপনার বেশি ভালো লাগা বং ধৈর্য কাজ করে সেই কাজটি শিখবেন।

এরপর মার্কেট প্লেস একাউন্ট খুলবেন। একই সাথে ওই রিলেটেড অন্যান্য কাজের জন্য স্কিল বাড়াতে থাকবেন।

আরও পড়ুনঃ ফ্রিল্যান্সিং কিভাবে শিখবো । ফ্রিল্যান্সিং সম্পর্কিত বিস্তারিত

আসলে আমরা যেই কাজ করে জীবন চালানোর জন্য অর্থ আয় করি সেই কাজটি যদি আমাদের প্যাশান না হয় তাহলে ওই কাজতিতে কখনই মানসিক শান্তি কিংবা মজা আনন্দ পাওয়া যায় নাহ।

তাই যদি আপনার ফ্রিল্যান্সিং এর কাজগুলতে যদি প্যাশান মনে করেন তাহলে ফ্রিল্যান্সিং করা যাবে।

আর একটি কথা, আপনি যদি মনে করেন কোন এক ব্যক্তি ফ্রিল্যান্সিং করে লাখ টাকা আয় করছে, আপনিও আজ ফ্রিল্যাসিং কাজ  শুরু করে কালকেই টাকা আয় শুরু করবেন।

এটি মনে করলে ভাই বিশ্বাস করেন, আপনার জন্য ফ্রিল্যান্সিং নাহ।

ক্তি সরকারি জবের জন্য জবনের ২২ -২৩ বছর পড়াশোনা করেন কিন্তু লাখ লাখ টাকা আয় করার জন্য ৬ মাস ১ বছর কাজ শিখে ঞ্জের স্কিল বাড়াতে পারেন না।

তাহলে আপনার জন্য ফ্রিল্যান্সিং না। এমনকি এই পোষ্টের বাকি অংশ পড়েও আপনার মূল্যবান সময় নষ্ট করতে হবে না।

কিভাবে ফ্রিল্যান্সিং শুরু করবো ?

এতক্ষণে নিশ্চয়ই ফ্রিল্যান্সিং বলতে কি বুঝায় এবং ফ্রিল্যান্সিং কেন করবো সেই সম্পর্কে জানতে পেরেছি।

এখন জানার চেষ্টা করবো কিভাবে ফ্রিল্যান্সিং শুরু করবো বা কিভাবে ফ্রিল্যান্সিং শুরু করতে হবে।

কিভাবে ফ্রিল্যান্সিং শুরু করবো এই জিজ্ঞেসা প্রায়ই বিভিন্ন সোশ্যাল গ্রুপে দেখা য্যায়।

আসলে একটি বিষয়ে কাজ শেখা শুরু করলে সেইখানেই বোঝা যায় যে পরবর্তীতে কি করা উচিত। শুধু শুরু করাটা গুরুত্বপূর্ণ।

আপনি ফ্রিল্যান্সিং সেক্টরের কোন কাজটি বেশি ভালো লাগে সেটি আগে দেখুন।

ডিজিটাল মার্কেটিং, ওয়েব ডেভলপমেন্ট, ব্লগিং, ইত্যাদি সহ প্রায় হাজারের বেশি কাজ আছে ফ্রিল্যান্সিন্স সেক্টরে।

তাই, আপনার পছন্দের কাজটি সিলেক্ট করে সেই বিষয়ের প্রাথমিক ধারণা নিবেন ইউটিউব কিংবা গুগলে টিউটোরিয়াল দেখে।

এরপর শুধু মাত্র ওই কাজটি আয়ত্ত করতে যেভাবে শুরু করা দরকার সেইভাবে শুরু করেন।

এবার কাজটি শেখা হয়ে গেলে কাজ শুরু করার পাশাপাশি ওই কাজের সাথে সম্পৃক্ত অন্যান্য ৫ টি বা তার অধিক কাজের স্কিল আপনার দরকার হবে।

এর কারণ, আপনি যখন কোনও বায়ার বা ক্লায়েন্টের (কাজের চুক্তিতে যার কাজ করবেন) এক্তির সাথে রিলেটেড আরেকটি কাজ অন্যকে দিয়ে করাবে না।

সে আপনাকে কাজ দেওয়ার আগে দেখবে আপনার দুইটি কাজ করার স্কিল আছ কি না।

আরও পড়ুনঃ ডোমেইন হোস্টিং কি । ওয়েব হোস্টিং কেন প্রয়োজন

তাই পর্যায়ক্রমে রিলেটেড কাজের স্কিল আপনাকে আয়ত্ত করতেই হবে। এবার আপনাকে জানতে হবে ফ্রিল্যান্সিং করার জন্য কিসের প্রয়োজন হয়।

চলুন জেনে নেওয়া যাক ফ্রিল্যান্সিং কাজ করার জন্য কিসের প্রয়োজন হয় সে সম্পর্কে জেনে নেওয়া যাক।

ফ্রিল্যান্সিং কাজ করার জন্য কিসের প্রয়োজন ?

ফ্রিল্যান্সিং কাজের জন্য বেশ কয়েকটি বিষয় বা জিনিস আপনার প্রয়োজন পরবে।

তাহলে কি সেই জিনিসগুলো যা ফ্রিল্যান্সিং এ নতুন কাজ শুরু করার জন্য প্রয়োজন পরবে।

১) সীমাহীন ধৈর্য।

২) রিসার্চ করার মানসিকটা।

৩) শেখার মানসিকতা।

৪) ৬ থেকে ১২ মাস বা তার বেশি সময় শুধু কাজ শেখার মানসিকটতা।

৫) দীর্ঘক্ষণ (প্রতিদিন ৭-১২ ঘণ্টা) বাকাজ অনুযায়ী তার বেশি কম্পিউটারের সামনে বসে থাকা।

৬) কম্পিউটার কিংবা ল্যাপটপ এবং ইন্টারনেট ব্যবস্থা।

৭) লেগে থাকার মানসিকতা।

বেশ। এই ৭ টি বিষয়েই ফ্রিল্যান্সিং কাজ করার জন্য যথেষ্ট।

আপনি এতক্ষণে নিশ্চয়ই বুঝতে পারছেন ফ্রিল্যান্সিং কাজ করার জন্য এই ৭ টি বিষয় আপনার মধ্যে থাকতে হবে।

ফ্রিল্যান্সিং সম্পর্কিত সর্বশেষ

আশা করছি এতক্ষণে ফ্রিল্যান্সিং কাজ করার জন্য কিসের প্রয়োজন সেই বিষয়ে এতক্ষণে জানতে পেরেছেন।

ফ্রিল্যান্সিং সম্পর্কিত আরও অনেক বিষয়ে জানে আমাদের ওয়েবসাইটের অনলাইন টিপস ক্যাটাগরিতে ভিজিট করুন।

এছাড়া চোখ রাখুন আমাদের অফিসিয়াল ফেসবুক পেজ Dainikkanha এ।

2 thoughts on “ফ্রিল্যান্সিং কাজ করার জন্য কিসের প্রয়োজন । কিভাবে ফ্রিল্যান্সিং শিখবো”

Leave a Comment

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.