অনলাইনে জিপিএফ ব্যালেন্স চেক । জিপিএফ লোন নেওয়ার উপায়

প্রত্যেক সরকারি চাকরিজীবীদের জিপিএফ বা সাধারণ ভবিষ্যৎ তহবিলে বেতনের নির্দিষ্ট অংশ কেটে রাখা হয়। তাকে জিপিএফ ব্যালেন্স বলে। আজকের পোষ্টে আমরা অনলাইনে জিপিএফ ব্যালেন্স চেক অর্থাৎ জিপিএফ হিসাব দেখার নিয়ম সম্পর্কে জানবো।

জিপিএফ বা General Provident Fund যার বাংলা অর্থ দাড়ায় সাধারণ ভবিষ্যৎ তহবিল। প্রত্যেক সরকারি চাকরিজীবীদের বেতনের নির্দিষ্ট এক্তি অংশ কেটে রেখে দেয় সরকার। সেই টাকার উপর চক্রব্রিদ্ধি হারেমুনাফা জমা হতে থাকে যা চাকরি থেকে অবসরের সময় দিয়ে দেওয়া হয়।

একজন সরকারি চাকুরীজীবী তার জিপিএফ ব্যালেন্স এর ৮০ ভাগ টাকা লোণ নিতে পারেন।যার সুদের পরিমাণ হয় ১৩%। তবে এইতাকার পুরোটাই ব্যক্তিকে অবসরের সময় দিয়ে দেওয়া হয়।

আজকের পোষ্টে আমরা অনলাইনে জিপিএফ বালেন্স চেক করার নিয়ম, জি পি এফ হিসাব দেখার নিয়ম, জিপিএফ কর্তনের হার, জিপিএফ হিসাব ফরম, জিপিএফ লোণ নেওয়ার কার্যক্রম বা পদ্ধতি সহ জিপিএফ ব্যালেন্স সঙ্ক্রান্ত সকল তথ্য জানার চেষ্টা করবো।

অনলাইনে জিপিএফ ব্যালেন্স চেক করতে প্রয়োজন সমুহ

আপনি অনলাইনে যার জিপিএফ ব্যাস্লেন চেক করবেন তার কিছু তথ্য প্রয়োজন হবে। অনলাইনে জিপিএফ ব্যালেন চেক করতে যা যা প্রয়োজনীয় তা হচ্ছেঃ

আরও পড়ুনঃ নতুন আইডি কার্ড কিভাবে দেখব । ভোটার আইডি কার্ড চেক করার নিয়ম

১) চাক্রিজিবি ব্যক্তির এনআইডি কার্ডের নাম্বার।(NID Number)

২) পে ফ্রিকেশসনে ব্যবহৃত মবাইল নাম্বার। (এক্তি কোড পাঠানো হবে)

৩) ইন্টারনেট কানেকশন।

৪) নিচের পদ্ধতি অনুসরণ।

উপরের বিষয়গুলো থাকলেই আপনি অনলাইন থেকে আপনার জিপিএফ ব্যালেন্স চেক করে নিতে পারবেন। তার জন্য নিচের পদ্ধতিগুলো অনুসরণ করতে হবে।

জিপিএফ ব্যালেন্স চেক করার নিয়ম

আপনি আপনার বা আপনার পরিচিতিজন্দের জিপিএফ ব্যালেন্স চেক করতে পারবেন সম্পূর্ণ অনলাইনে ঘরে বসে। এজন্য আপনাকে নিচের পদ্ধতিগুলো অনুসরন করতে হবে। নিচে সব কয়টি পয়েন্ট একের পর এক অনুসরন করলেই আপনি ঘরে বসে অনলাইনে জিপিএফ ব্যালেন্স চেক করতে পারবেন।

চলুন, অনলাইনে জিপিএফ ব্যালেন্স চেক করে নেওয়া যাক।

১) মোবাইল বা কম্পিউটার থেকে যেকোনো ব্রাউজার ওপেন করে cafopfm নামের একটি ওয়েবসাইটে প্রবেশ করতে হবে। (সাইটের লিংক নিচে দিয়ে দেওয়া হয়েছ)।

লিংকে ক্লিক করার পর নিচের ছবির মতো একটি পেজ ভিউ দেখতে পাবেন।

২) উপরের ছবির মতো একটি পেজ ভিউ দেখার পর দ্বিতীয় অপশন (GPFInformation) লেখার নিচে Click Here এ ক্লিক করবেন।

এরপরে নিচের ছবির মতো একটি পেজ ভিউ দেখতে পাবেন।

৩) উপরের ছবিটির মতো পেজ ভিউ দেখতে পাওয়ার পরে নির্দিষ্ট জায়গায় সঠিক ভাবে জাতীয় পরিচয়পত্র নাম্বার এবং মোবাইল নাম্বার বসিয়ে দিন। কয়েকবার চেক করে নিন। যাতে ভুল না হয়।যার জিপিএফ ব্যালেন্স চেক করবেন তার তথ্য এখানে দিবেন। এরপর Submit অপশনে ক্লিক করবেন। এরপর নিচের ছবিটির মতো একটি পেজ ভিউ দেখতে পাবেন।

৪) উপরের পেজ ভিউতে একটি ওটিপি বসাতে হবে। এই ওটিপিটি ব্যক্তির মোবাইল নাম্বারে পাঠানো হবে। ওটিপি বসিয়ে নিচে Submit এ ক্লিক করতে হবে। আপনার সকল তথ্য সঠিক থাকলে নিচে আপনার জিপিএফ ব্যালেন্স সহ সকল তথ্য দেখতে পাবেন।

এই পেজে আপনি যা যা দেখতে পাবেন তা হচ্ছে,

  1. Financal yeaar.
  2. Subscriber name.
  3. Account number.
  4. NID
  5. Volume no.
  6. Page number. 

এছারা আপনি আপনার পূর্ববর্তী অর্থ বছরের যেকোনো তথ্য দেখতে পাবেন। এবং পিডিএফ আকারে ডাউলোডঃ করতে পারেন। একই সাথে প্রিন্ট করে নিতে পারেন। প্রিন্ট করার জন্য দান পাশে উপরের দিকে প্রিন্ট নামের একটি অপশন আছে।

সেখানে ক্লিক করলে আপনার প্রিন্টার মেশিনে কানেক্ট থাকলে প্রিন্ট হয়ে যাবে। অথবা আপনি পিডিএফ আকারে নিয়ে প্রিন্ট করে নিতে পারেন।

অনলাইনে জিপিএফ ব্যালেন্স চেক করতে এখানে ক্লিক করুনঃ cafopfm

আশা করছি অনলাইনে জিপিএফ ব্যালেন্স চেক কিভাবে করতে হয় এতক্ষনে তা জেনে গেছেন।

জি পি এফ হিসাব দেখার নিয়ম । জিপিএফ হিসাব

জিপিএফ হিসাব বের করার জন্য আপনাকে জিপিএফ হিসাব ক্যালকুলেটরে প্রবেশ করতে হবে।

জিপিএফ হিসাব ক্যালকুলেটরে প্রবেশ করতে এখানে ক্লিক করুন

ক্যালকুলেটরে হিসাবে প্রবেশ করার পর আপনি উপরের ছবির মতো একটি পেজ ভিউ দেখতে পাবেন।

এখান থেকে আপনার opening balance,  monthly subscription, advance withdrawal বসিয়ে নিচে Result অপশনে ক্লিক করলেই আপনার জিপিএফ ব্যালেন্স এর সকল তথ্য পেয়ে যাবেন।

এভাবে জিপিএফ হিসাব বের করার নিয়ম অনুযায়ী আপনি আপনার জিপিএফ হিসাব বের করে নিতে পারেন।
জিপিএফ হিসেব অনুযায়ী জিপিএফ কর্তনের হার ব্যক্তির মূল বেতনের সর্বোচ্চ ২৫ ভাগ এবং সর্বনিম্ন ৫ ভাগ।

অর্থাৎ একজন সরকারি চাকরিজীবীর এই টাকা জিপিএফ ফান্ডে বাধ্যতামূলক ভাবে রাখতে হবে।

জিপিএফ লোণ নেওয়ার উপায়

অনেকেরই অর্থ সমসস্যা হয়ে থাকে। সরকারি চাকরিজীবীরা চাইলেতার নিজস্ব জিপি ফান্ডে জমা তাকার ৮০% টাকা লোণ হিসেবে নিতে পারেন।

এখান থেকে লোণ নিলে ১৩% হারে সুদ দিতেহয়। যা বেতন থেকে সুদ এবং আসল সহ কেটে নিবে।

তবে সুদ আসল সব টাকা ব্যক্তির একাউন্টেই থাকবে।

আরও পড়ুনঃ নতুন ভোটার আইডি কার্ড করার নিয়ম 

অন্যদিকে চাকরির শেষ দিকে নিতে চাইলে অফেরত যোগ্য লোণ ও নেওয়া যায়।

এই সম্পূর্ণ প্রসেসের জন্য আপনার থানা একাউন্টস অফিসে যোগাযোগ করতে হবে।

সেখান থেকে আপনাকে বলে দেওয়া হবে আপনার জিপি ফান্ড থেকে আপনি সরবাধিক কত টাকা লোণ নিতে পারবেন এবং কি কি করতে হবে।

উপরের ক্যালকুলেটর ব্যবহার করে আপনি নিজেও বের করতে পারবেন কত টাকা লোণ নিতে পারবেন। মোট জমা ট্কার ৮০ % পর্যন্ত লোণ নেওয়া যায়।আর আমাদের দেশের সিস্টেম অনুযায়ী এজন্য একাউন্টস অফিসের অফিস সহায়ক ৫০০ থকে ১৫০০ টাকা নিয়ে আপনার এই কাজটি কয়েকদিনের মধ্যে করে দিবে।

জিপিএফ ব্যালেন্স চেক এবং লোণ নিয়ে সর্বশেষ

আজকের পোষ্টে আমরা জেনেছি অনলাইনে জিপিএফ ব্যালেন্স চেক করার উপায়।

অনলাইন জিপিএফ হিসাব, জি পি এফ বের করার হিসাব জিপিএফ কর্তনের হার।

এবং জেনেছি কিভাবে কোন প্রক্রিয়ায় নিজের জিপিএফ একাউন্ট থেকে লোণ নেওয়া যায়।

জেনেছি কত টাকা কত % সুদে লোণ নিতে হয়। আশা করছি অনলাইনে জিপিএফ ব্যালেন্স চেক করা নিয়ে বিস্তারিত জেনেছেন।

এরপরেও আর কিছু জানার থাকলে কমেন্ট করে জানান।

এছাড়া সরকারি তথ্য মুলক সেবা পেতে আমাদের Government Information category ক্যাটাগরি ভিজিট করুন।

সর্বশেষ আপডেট পেতে চোখ রাখুন আমাদের ফেসবুক পেজে Dainikkantha এ।

1 thought on “অনলাইনে জিপিএফ ব্যালেন্স চেক । জিপিএফ লোন নেওয়ার উপায়”

Leave a Comment

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.